ত্বকের যত্নে বিভিন্ন ধরনের ফেস ওয়াশ

ত্বকের যত্নে বিভিন্ন ধরনের ফেস ওয়াশ

ফেস ওয়াশ আমরা কম বেশী সবাই ব্যবহার করে থাকি। ধূলা বালি থেকে ত্বককে পরিস্কার রাখতে হলে আমাদের সকলের অবশ্যই ফেস ওয়াশ ব্যবহার করা উচিত। তবে এক্ষেত্রে ত্বককে সুরক্ষিত রাখতে হলে ভালো মানের ফেস ওয়াশের বিকল্প নেই। কেননা নিম্ন মানের ফেস ওয়াশ ব্যবহার করলে ত্বক ভালো হওয়ার বদলে ত্বকে বিভিন্ন স্কিন সমস্যা দেখা দিবে।

মার্কেটে বিভিন্ন ধরনের ফেস ওয়াশ পাওয়া যায়। এর মধ্যে কোনটা আসল আর কোনটা নকল তা বুঝা খুবই কঠিন। তাই এক্ষেত্রে আপনি প্রথমে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ফেস ওয়াশ দেখতে পারেন। এর পর ফেস ওয়াশগুলো কি কি উপাদান দিয়ে তৈরি হয়েছে তা দেখে নিতে পারেন। সেই সাথে আপনা ত্বক কোন ধরনের এবং আপনা ত্বক এর সাথে কোন ফেস ওয়াশটা যাবে সেটা দেখে নিতে পারেন। তাহলেই আপনি পেয়ে যাবেন আপনার উপযুক্ত ফেস ওয়াশ। নিম্নে কয়েকটি ব্র্যান্ডেড ফেস ওয়াশের নাম ও কার্যকারিতা উল্লেখ করা হলো:

ছেলেদের কয়েকটি ফেস ওয়াশ :

১। Fair & Lovely Max Fairness Face Wash: এটি ত্বক ফর্সা করে এবং স্পট কমিয়ে আনে।দীর্ঘ সময় ফেয়ারনেস দেয়।ত্বক তৈল মুক্ত ও মসৃণ করে রাখে (তৈলাক্ত ত্বকের)। দিনে অন্তত ২ বার সমগ্র মুখ ও গলায় ব্যবহার করতে হবে।দাম মাত্র ১৮৫ টাকা।

২। Himalaya Intense Oil Clear Lemon Face Wash: এটি মুখ পরিষ্কার করে ও অতিরিক্ত তেল সরিয়ে ফেলে।ইম্পুরিটিস ও পলুট্যান্টস দূর করতে সাহায্য করে।হারবাল এবং লেবুর নির্যাশ থেকে এটি প্রস্তুত করা হয়। দাম মাত্র ১৭০ টাকা।

৩। Himalaya Power Glow Licorice Face Wash: এটি মুখ পরিষ্কার করে ও ত্বকের মৃত কোষ গুলো নতুন করে তোলে। স্কিন এর উজ্জলতা বৃদ্ধি করে ও মৃত কোষ জীবিত করে।ত্বক এর সঠিক যত্ন নেয়। এটি মূলত লাইসোরাইস, আলফালফা ও কাঠের গুঁড়ো পাউডার দিয়ে প্রস্তুত করা হয়। দাম মাত্র ১৮০ টাকা।

৪। Pond’s Men Oil Control Face Wash: এটি স্কিন এর অতিরিক্ত তেল শোষণ করে, মুখের বিভিন্ন দাগ ও ব্রণ এর হাত থেকে রক্ষা করে, স্কিন এর ছিদ্র ছিদ্র দাগ গুলু মুছে ফেলতে সাহায্য করে।এই ফেস ওয়াশটি হাজেল নির্যাশ ও খনিজ কলের মিশ্রণে প্রস্তুত করা হয়। দাম মাত্র ১৪০ টাকা।

৫। OXY Perfect Wash:  এটি ব্রণ এর দূর করে, স্কিন এর কাল দাগ গুলোর উজ্জলতা বৃদ্ধি করে ও ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে।ইউরোপীয় ফলের তেল, সাল্ভিয়া অফিসিনালিস পাতা ও মেনথল ব্যবহার করে এটি তৈরি করা হয়েছে।এর বর্তমান মূল্য ৩২০ টাকা।

মেয়েদের কয়েকটি ফেস ওয়াশ:

১। Himalaya Herbals Purifying Neem Face Wash: এই ফেসওয়াশটি তৈলাক্ত ত্বকের অধিকারীদের জন্য বেশ উপকারি। এটি ত্বককে ভিতর থেকে পরিষ্কার করে থাকে।সেই সাথে ত্বকের বাড়তি তেলও দূর করে।

২। Neutrogena Deep Clean Facial Cleanser: এটি মূলত সব ধরণের ত্বকের জন্য পারফেক্ট। এই ফেসওয়াশটি ত্বকের ধুলো, বালি, ময়লা ভিতর থেকে পরিষ্কার করে থাকে।

৩। Garnier Pure Exfoliating Face Wash: এটি ত্বক ত্বক পরিষ্কার করার পাশাপাশি ত্বককে এক্সফলিয়েট করে থাকে। অ্যালকোহল ফ্রি হওয়া র কারনে ত্বক শুষ্ক হয় না। তাছাড়া এটি সবধরণের ত্বকের জন্য উপযোগী।

৪। Olay Natural White Foaming Cleanser: এটি ত্বক থেকে ময়লা, ধুলোবালি, সানবার্ন দূর করে দেয়।এটি মূলত তৈলাক্ত ত্বকের জন্য বেশ উপকারি।

৫। Pond’s Pure White Deep Cleansing Facial Foam: এটি ত্বকের সবধরণের ময়লা ধুলো বালি দূর করে দেয়। সেই সাথে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে। তবে এটি ত্বক কিছুটা রুক্ষ এবং শুষ্ক করে তোলে।

বাজারে এলো নতুন ও আধুনিক ইলেকট্রিক পেস্ট কিলার

বাজারে এলো নতুন ও আধুনিক ইলেকট্রিক পেস্ট কিলার

আমরা মশা ও কীটপতঙ্গ মারার অথবা তাড়ানোর জন্য বিভিন্ন ধরনের উপায় অবলম্বন করে থাকি। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে এখন বাজারে এসেছে বিভিন্ন ধরনের ইলেকট্রিক পেস্ট কিলার।মশা ও কীটপতঙ্গ মারা অথবা তাড়ানোর জন্য আমরা যে ধরনের উপায় বা পদ্ধতি ব্যবহার করি তাতে কখনো ভালো আবার কখনো খারাপ ফল পেয়ে থাকি।উদাহরণ হিসেবে বলা যেতে পারে বিভিন্ন মশার কয়েল ব্যবহারে আমাদের অনেক সমস্যা হয়। কারণ মশার কয়েলে ধোঁয়া থাকে।তাই মানুষের সুবিধার কথা মাথায় রেখে উদ্ভাবিত হয়েছে বিভিন্ন ধরনের ইলেকট্রিক পেস্ট কিলার।

ইলেকট্রিক পেস্ট কিলার এর সুবিধা 

ইলেকট্রিক পেস্ট কিলার ব্যবহারের সুবিধার মধ্যে যদি প্রথম উল্লেখ করতে হয় তাহলে প্রথমেই উল্লেখ করতে হবে এটি কোন প্রকার ধোঁয়া ছাড়াই মশা অথবা কীটপতঙ্গ নিধন এবং তাড়ানোর কাজ করে।

মশার কয়েলে থাকা উচ্চমাত্রার রাসায়নিক পদার্থ স্বাস্থ্যের জন্য বিশেষ করে শিশুদের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। কিন্তু ইলেকট্রিক পেস্ট কিলার ব্যবহারে এধনের কোন ক্ষতির আশংকা থাকে না।

ইলেকট্রিক ব্যাট ব্যবহারে অনেক সময় নষ্ট হয়। এদিক থেকে ইলেকট্রিক পেস্ট কিলার ব্যবহারে কোন সময় নষ্ট হবে না। কারণ ইলেকট্রিক পেস্ট কিলারটি একটি নির্দিষ্ট স্থানে রেখে শুধুমাত্র সুইচ অন করে দিলেই  কাজ শেষ।

ইলেকট্রিক পেস্ট কিলার কিভাবে রাখবেন

ইলেকট্রিক পেস্ট কিলার শুধু মশা ও কীটপতঙ্গই তাড়ায় না একই সাথে সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে ঘরের। প্রকৃত পক্ষে ইলেকট্রিক এই পেস্ট কিলারটি রাখার জন্য নির্বচান করতে হবে একটি নির্দিষ্ট স্থান। বার বার সরানো নাড়ানো না করলেই ভালো হয়।

সাবধানতা

আমাদের সঠিক পরিকল্পনা ও সিদ্ধান্তের কারণে বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে মাসুল দিতে হয়। তাই ইলেকট্রিক পেস্ট কিলারটি এমন স্থানে বসাতে হবে যে স্থানটা থাকবে বাচ্চাদের নাগালের বাইরে।বিশেষ করে সুইচ রাখতে হবে বাচ্চাদের নাগালের বাইরে। কারণ বাচ্চাদের নাগালের মধ্যে থাকলে অনেক সময় দূর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে। তাই সাবধান থাকাটা খুবই জরুরী।

মশা ও কীটপতঙ্গ নিধন অথবা তাড়ানোর জন্য কখনোই কোন ইলেকট্রিক যন্ত্র শরীরের কাছাকাছি রাখা ঠিক নয়।

 কোথায় পাবেন ইলেকট্রিক পেস্ট কিলার

বাজারে বিভিন্ন ব্রান্ডের ইলেকট্রিক পেস্ট কিলার পাওয়া যায়।কিন্তু বর্তমানের সবচেয়ে জনপ্রিয় বাজার হচ্ছে অনলাইন মার্কেট। অনলাইন মার্কেট এর প্রথম সুবিধা হচ্ছে ঘরে বসেই যাচাই করে আপনি আপনার পছন্দের ইলেকট্রিক পেস্ট কিলারটি ক্রয় করে নিতে পারেন।উদাহরণ হিসেবে বলা যেতে পারে বিডি স্টল এর নাম। বিডি স্টল ওয়েবসাইট থেকে আপনার পছন্দ মতো ইলেকট্রিক পেস্ট কিলার ক্রয় করতে পারেন।

 দাম কেমন

প্রকৃত পক্ষে বাজার ও অনলাইন মার্কেটে বিভিন্ন ব্রান্ডের ইলেকট্রিক পেস্ট কিলার পাওয়া যায়।পেস্ট কিলার গুলোর দামও বিভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে।কম ও বেশি দাম দিয়ে ক্রয় করলেই যে ভালো হবে এটা বলা ঠিক হবে না। কিন্তু ভালো মানে ইলেকট্রিক পেস্ট কিলার যদি ক্রয় করতে হয় তাহলে দামটা একটু বেশিই যাবে এটাই স্বাভাবিক। ভালো মানের ইলেকট্রিক পেস্ট কিলার ক্রয় করলে স্থায়িত্ব ও কাজে সুফলও পাওয়া যায় অনেকটা।ইলেকট্রিক পেস্ট কিলার ৯০০ থেকে শুরু করে ১৮০০ ও ২৫০০ টাকার মধ্যে হতে পারে।

মোঃ রাজিবুল ইসলাম (রাজিব)
ট্রেইনার, জাতীয় যুব ও কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র।
ফ্রিল্যান্সার ও পরিচালক, বেস্ট ওয়েব বিজনেস ডেভেলপমেন্ট
+88 0791 232299
bestweball@gmail.com
www.bestwebbd.com